সোনাক্ষী সিনহার জীবনী – Sonakshi Sinha Biography in Bengali

banglaseries.com
10 Min Read
সোনাক্ষী সিনহার জীবনী

সোনাক্ষী সিনহার জীবনী, সিনেমা, স্বামীর নাম, বিয়ে, নতুন সিনেমা, বয়স, পরিবার, (Sonakshi Sinha Biography in Bengali) (Husband Name, Movie, News, Engagement, Mother, Marriage)

সোনাক্ষী সিনহা বর্তমানে বলিউডের অন্যতম প্রধান অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন। তিনি জনপ্রিয় অভিনেতা শত্রুঘ্ন সিনহার কন্যা। সোনাক্ষী তার অভিনয় জীবনের সূচনা করেন সালমান খানের সঙ্গে “দাবাং” ছবিতে অভিনয় করে। এই ছবিটি মুক্তির পরেই তিনি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন এবং তার কেরিয়ার গ্রাফ দ্রুত উপরে ওঠে।

“দাবাং” ছবির পর সোনাক্ষীর অভিনয় প্রতিভা আরও নানাবিধ ছবিতে প্রস্ফুটিত হয়েছে। “রাউডি রাঠোর,” “সন অফ সর্দার,” “দাবাং ২,” এবং “হলিডে” সহ অনেক সফল ছবিতে তিনি প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

২০২৪ সালে এসে সোনাক্ষী একের পর এক সাফল্যমণ্ডিত ছবি বলিউডে উপহার দিয়ে চলেছেন। তার অভিনয় দক্ষতা ও প্রজ্ঞার জন্য তিনি সমালোচকদের প্রশংসা পেয়েছেন এবং ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ফর বেস্ট ফিমেল ডেবিউ, ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ফর বেস্ট অ্যাক্ট্রেস এবং সমালোচক পুরস্কার সহ অনেক সম্মান অর্জন করেছেন।

সোনাক্ষীর অভিনয় জীবনের এই উত্থান এবং তার ব্যক্তিগত জীবন বলিউডে তার এক অসাধারণ অবস্থান প্রতিষ্ঠা করেছে। তার জীবন এবং ক্যারিয়ার বলিউডের নতুন অভিনেত্রীদের জন্য এক উদাহরণ হয়ে উঠেছে। ২০২৪ সালের হিসেবে, সোনাক্ষী সিনহা একজন অন্যতম সফল এবং প্রতিভাবান অভিনেত্রী হিসেবে নিজের জায়গা তৈরি করেছেন, এবং তার প্রতি দর্শকদের ভালোবাসা এবং সমর্থন ক্রমাগত বাড়ছে।

সোনাক্ষী সিনহার জীবনী – (Sonakshi Sinha Biography in Bengali)

নাম সোনাক্ষী সিনহা
জন্ম ২ জুন ১৯৮৭
জন্ম স্থান মুম্বাই, মহারাষ্ট্র
বয়স ৩৫ বছর
পেশা অভিনেত্রী
স্কুল আর্য বিদ্যা মন্দির, মুম্বাই
কলেজ শ্রীমতি নাথিবাই দামোদর ঠাকরসি মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক (ফ্যাশন ডিজাইনিং
পিতার নাম শত্রুঘ্ন সিনহা
মাতার নাম পুনম সিনহা
ভাই লাভ সিনহা, কুশ সিনহা
শখ ফটোগ্রাফি করা, পড়া, যোগ করা, নাচ করা
বৈবাহিক অবস্থা বিবাহিত
গাড়ি বিএমডব্লিউ ৫ সিরিজ গ্রান ট্যুরিজমো
বেতন ৪ কোটি প্রতি ছবি
সম্পত্তি ৬০ কোটি

সোনাক্ষী সিনহার জন্ম ও প্রাথমিক জীবন (Sonakshi Sinha Early Life)

মশহুর অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা ২ জুন ১৯৮৭ সালে বিহারের রাজধানী পাটনাতে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা শত্রুঘ্ন সিনহা হিন্দি সিনেমার একজন প্রসিদ্ধ অভিনেতা এবং তার মাতা পুনম সিনহা একজন অভিনেত্রী। শত্রুঘ্ন সিনহা শুধু অভিনেতা নয়, ভারতীয় রাজনীতিতে সক্রিয় একজন রাজনীতিবিদও বটে। তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য হিসেবে রাজনীতি করেন। সোনাক্ষীর দুই ভাই রয়েছে, যারা যমজ। তাদের নাম লাভ এবং কুশ। লাভকে “সদিয়াঁ” ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গেছে। সোনাক্ষীর প্রাথমিক শিক্ষা মুম্বাইয়ের আর্য বিদ্যা মন্দিরে সম্পন্ন হয়।

এখান থেকে তার স্কুলের পড়াশোনা শেষ করার পর, তিনি ‘শ্রীমতি নাথিবাই দামোদর ঠাকরসি মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়’ থেকে ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। সোনাক্ষীর এই শিক্ষাগত পটভূমি তার অভিনয় জীবনের সঙ্গে যুক্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। ২০২৪ সালে এসে, সোনাক্ষী বলিউডের অন্যতম প্রধান এবং সফল অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sonakshi Sinha (@aslisona)

সোনাক্ষী সিনহার ক্যারিয়ার (Sonakshi Sinha Career)

সোনাক্ষী সিনহা তার ক্যারিয়ারের শুরুতে একজন কস্টিউম ডিজাইনার হিসেবে কাজ শুরু করেন। ২০০৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত “মেরা দিল লেকে দেখো” ছবির জন্য এবং আরও কিছু ছবির জন্য তিনি কস্টিউম ডিজাইনার হিসেবে কাজ করেছেন। ২০২৪ সালে, সোনাক্ষী একজন সফল অভিনেত্রী হিসেবে বলিউডে প্রতিষ্ঠিত।

সোনাক্ষী সিনহার ফিল্মগ্রাফি (Sonakshi Sinha Filmography)

সোনাক্ষী সিনহা তার চলচ্চিত্র জীবনের সূচনা করেন সালমান খানের সঙ্গে “দাবাং” ছবিতে অভিনয় করে। ২০১০ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবিটি সেই বছরের সবচেয়ে বেশি আয় করা ছবিগুলোর মধ্যে ছিল এবং বছরের ব্লকবাস্টার ছবিগুলোর মধ্যে প্রথম স্থানে ছিল। এই ছবির জন্য সোনাক্ষী ৩০ কেজি পর্যন্ত ওজন কমিয়েছিলেন এবং ছবিতে তার চরিত্র ছিল এক গ্রামের মেয়ে। ২০১১ সালে তার কোনো ছবি মুক্তি পায়নি, তবে ডেবিউর জন্য তিনি বেশ কয়েকটি পুরস্কার পান।

২০১২ সালে সোনাক্ষীর চারটি ছবি মুক্তি পায়, যার মধ্যে দুটি ছবিতে তিনি অক্ষয় কুমারের সঙ্গে অভিনয় করেন। তার প্রথম ছবি ছিল প্রভুদেবা পরিচালিত “রাউডি রাঠোর,” যেখানে তিনি অক্ষয় কুমারের বিপরীতে অভিনয় করেন। এই ছবিটি বছরের বড় হিট ছবিগুলির মধ্যে ছিল। এরপর “জোকার” ছবিতে আবার অক্ষয়ের সঙ্গে দেখা যায়, তবে ছবিটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়। এরপর তিনি অজয় দেবগনের সঙ্গে “সন অফ সর্দার” ছবিতে অভিনয় করেন, যা বক্স অফিসে সফল ছিল কিন্তু সমালোচকদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পায়। সেই বছর তার শেষ ছবি ছিল “দাবাং ২,” যেখানে তিনি তার প্রথম ছবির মতোই চরিত্রে অভিনয় করেন।

২০১৩ সালে সোনাক্ষীর প্রথম ছবি ছিল “লুটেরা,” যেখানে তিনি রণবীর সিংয়ের সঙ্গে অভিনয় করেন। এই ছবিটি বক্স অফিসে সফল না হলেও, সমালোচকরা তার অভিনয়কে অত্যন্ত প্রশংসা করেন। ছবিতে তিনি এক বাঙালি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন, যিনি টিউবারকুলোসিস রোগে আক্রান্ত। তার চরিত্র পাখির অভিনয় এতটাই সুন্দর ছিল যে দর্শকদের মনে গভীর ছাপ ফেলেছিল। এরপর তিনি “ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন মুম্বাই দোবারা” ছবিতে আবার অক্ষয়ের সঙ্গে অভিনয় করেন, কিন্তু ছবিটি ব্যর্থ হয়। তারপর “বুলেট রাজা” ছবিতে সাইফ আলি খানের সঙ্গে অভিনয় করেন এবং ছবিটি বক্স অফিসে ফ্লপ হয়। সেই বছর তার শেষ ছবি ছিল প্রভুদেবা পরিচালিত “আর. রাজকুমার,” যা কিছুটা সফল হয়েছিল, কিন্তু সমালোচকরা তাকে তার অভিনয় পুনরাবিষ্কারের পরামর্শ দেন।

২০১৪ সালে “রিও ২” ছবিতে তার কণ্ঠ শোনা যায় এবং অক্ষয় কুমারের সঙ্গে “হলিডে: আ সোলজার ইজ নেভার অফ ডিউটি” ছবিতে অভিনয় করেন, যা বক্স অফিসে হিট হয়েছিল। এরপর “অ্যাকশন জ্যাকসন” এবং “লিঙ্গা” ছবিতে রজনীকান্তের সঙ্গে অভিনয় করেন। ২০১৫ সালে “তেওয়ার” ছবিতে অর্জুন কাপুরের সঙ্গে অভিনয় করেন এবং ২০১৬ সালে “আকিরা” ছবিতে দেখা যায়, যা একটি তামিল ছবির রিমেক। এরপর তিনি “ফোর্স ২” এবং “নূর” ছবিতে অভিনয় করেন। বর্তমানে তিনি “ইত্তেফাক” ছবির রিমেকে কাজ করছেন।

Sonakshi Sinha Biography in Bengali
Sonakshi Sinha Biography in Bengali

সোনাক্ষী সিনহার ব্যক্তিগত জীবন (Sonakshi Sinha Personal Life)

মিডিয়ার মতে, সোনাক্ষী সিনহা “লুটেরা” ছবির শুটিংয়ের সময় রণবীর সিংকে ডেট করছিলেন এবং এই কারণে তাকে তার পিতার সমালোচনাও সহ্য করতে হয়েছিল। এছাড়া, সোনাক্ষী এবং আদিত্য শ্রফ দুই বছর ধরে একে অপরকে ডেট করেছিলেন। আদিত্য ফেম সিনেমার মালিক। কিন্তু পরে আদিত্যর আচরণে সোনাক্ষী অসন্তুষ্ট হন এবং তাদের সম্পর্ক শেষ হয়ে যায়। তাদের পরিবার এই সম্পর্ক সম্পর্কে সচেতন ছিল। এরপর সোনাক্ষী এবং  সাচদেবকে একসঙ্গে দেখা যায়। তবে বন্টির আগ্রাসী আচরণের কারণে এই সম্পর্কও টেকেনি। সোনাক্ষীর মা এবং ভাইও এই সম্পর্কের বিরুদ্ধে ছিলেন, কারণ বন্টি ডিভোর্সি ছিলেন এবং তাদের বয়সে অনেক পার্থক্য ছিল। ২০২৪ সালে এসে, সোনাক্ষীর প্রেম জীবনের এই অধ্যায়গুলি এখন অতীত, এবং তিনি তার ক্যারিয়ারে আরও মনোযোগী।

সোনাক্ষী সিনহা পুরস্কারের তালিকা (Sonakshi Sinha Awards List)

সোনাক্ষী সিনহা তার অভিনয় ক্যারিয়ারে অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেছেন। এখানে বিভিন্ন বছরের জন্য তার প্রাপ্ত পুরস্কারগুলি তুলে ধরা হলো:

  • ২০১১ (দাবাং ছবির জন্য):
    • এনুয়াল ইউরোপিয়ান বলিউড অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট নিউকমার ফিমেল’
    • আপসরা ফিল্ম এবং টেলিভিশন প্রডিউসার গিল্ড অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ফিমেল ডেবিউ’
    • ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ফিমেল ডেবিউ’
    • ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড: ‘স্টার ডেবিউ অফ দ্য ইয়ার’
    • লায়ন্স গোল্ড অ্যাওয়ার্ড: ‘ফেভারিট ডেবিউট্যান্ট’
    • স্টার স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড: ‘মোস্ট প্রমিসিং নিউকমার – ফিমেল’
    • স্টারডাস্ট অ্যাওয়ার্ড: ‘সুপারস্টার অফ টুমরো’
    • জি সিনে অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ফিমেল ডেবিউ’
    • FICCI ফ্রেমস অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ডেবিউ অভিনেত্রী’
    • আজ তক অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ডেবিউট্যান্ট অভিনেত্রী’
    • দাদাসাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট ডেবিউট্যান্ট অ্যাক্টর – ফিমেল’
  • ২০১২:
    • ইটিসি ইকোনমি অ্যাওয়ার্ড: ‘হাইয়েস্ট গ্রসিং অভিনেত্রী’
  • ২০১৩:
    • বিগ স্টার এন্টারটেইনমেন্ট অ্যাওয়ার্ড: ‘মোস্ট এন্টারটেইনিং অভিনেত্রী ফর রোমান্টিক রোল – ফিমেল’
  • ২০১৪:
    • জি সিনে অ্যাওয়ার্ড: ‘বেস্ট অভিনেত্রী (ক্রিটিক্স)

সোনাক্ষী সিনহার বিতর্ক (Sonakshi Sinha Controversy)

যদিও সোনাক্ষী সিনহার নাম এখনও পর্যন্ত কোনো বড় বলিউড কন্ট্রোভার্সির সঙ্গে যুক্ত হয়নি, তবে সম্প্রতি কিছু বিতর্ক তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। সম্প্রতি ভারতে জাস্টিন বিবারের এক লাইভ কনসার্টে সোনাক্ষী অংশগ্রহণ করেছিলেন। এই ঘটনার পর, গায়ক কৈলাশ খের মন্তব্য করেছিলেন যে যদি অভিনেতা-অভিনেত্রীরা গান গাইতে শুরু করেন, তাহলে গায়করা কীভাবে কাজ পাবেন। এই মন্তব্যের পর টুইটারে সেলেবদের মধ্যে টুইটের ঝড় বয়ে যায়। গায়ক আরমান মালিক কৈলাশ খেরের বক্তব্যকে সমর্থন করে টুইট করেন, অন্যদিকে “মাসান” খ্যাত ঋচা চাড্ডা সোনাক্ষীর পাশে দাঁড়িয়ে বলেন, অনেক গায়কও অভিনয় করেছেন। তিনি উদাহরণ হিসেবে সোনু নিগম, মোনালি ঠাকুর, সুখবিন্দর সিং-এর নাম উল্লেখ করেন, যারা অভিনয়ও করেছেন। এই বিতর্ক বড় আকার ধারণ করেনি এবং টুইটারের ডিবেট হিসেবেই রয়ে গেছে।

সোনাক্ষী তার প্রতিভা বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন। তার এই অর্জনগুলি আজকের যুবতীদের জন্য একটি প্রেরণা। ২০২৪ সালে এসে, সোনাক্ষীর এই ধরণের বিভিন্ন প্রতিভার প্রকাশ তার ক্যারিয়ারকে আরও সমৃদ্ধ করেছে এবং তাকে বলিউডের অন্যতম প্রধান অভিনেত্রী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে।

আরও পড়ুন – বিসিসিআই সেক্রেটারি জয় শাহের জীবনী
আরও পড়ুন – ক্রিকেটার জাসপ্রিত বুমরাহ জীবনী

FAQ-

প্রশ্ন: সোনাক্ষী সিনহার প্রথম ডেবিউ ফিল্ম কোনটি?
উত্তর: সোনাক্ষী সিনহার প্রথম ডেবিউ ফিল্ম “দাবাং”।

প্রশ্ন: সোনাক্ষী সিনহার কি পছন্দ?
উত্তর: সঙ্গীত শোনা এবং পড়তে পছন্দ করেন।

প্রশ্ন: সোনাক্ষী সিনহার কত সম্পত্তি আছে?
উত্তর: সোনাক্ষী সিনহার ৬০ কোটি টাকার সম্পত্তি আছে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Share This Article
Leave a comment